অনেক সেনাপতি তৈরি করেছি, এবার শিল্পপতি বানাবো : শিল্পমন্ত্রী

সংবাদদাতা
সংবাদদাতা
প্রকাশিত: 0৮:১৪, এপ্রিল ১২ ২0১৯ |
Print
ফাইল ছবি

জনতারকন্ঠ প্রতিনিধি :

    শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন বলেছেন, আমাদের বাজার আমাদেরই ধরে রাখতে হবে। আমদানি না করে নিজেরাই গাড়ি তৈরি করতে হবে। আমরা অন্যের ওপর নির্ভরশীল হয়ে থাকতে চাই না। নিজেরা নিজেদের গাড়ি তৈরি করবো। অনেক সেনাপতি তৈরি করেছি। এবার শিল্পপতি বানাবো।

রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় সেমস গ্লোবাল আয়োজিত ১৪তম ঢাকা মোটর, ৫ম ঢাকা বাইক, ৪র্থ ঢাকা অটো পার্টস ও ৩য় ঢাকা কমার্শিয়াল অটোমোটিভ শো’র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। এসময় মন্ত্রী বলেন, দৃঢ় প্রচেষ্টায় বাংলাদেশ শিল্প উন্নয়নের যে মাইলফলকে পৌঁছেছে, সারাবিশ্বে অনুকরণের রোল মডেল হয়ে দাঁড়িয়েছে।

শিল্পক্ষেত্রে আমরা অনেক এগিয়ে গেছি। মূলত তা বঙ্গবন্ধুর অবদান। তিনি যদি ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন (বিসিক) প্রতিষ্ঠা না করতেন, তাহলে আজ দেশ শিল্পে এগিয়ে যেতে পারতো না।শিল্পমন্ত্রী এও বলেন, ঢাকার ফিটনেসবিহীন গাড়ি নিয়ে অনেকে অনেক কথা বলেন, যানজটের জন্য এসব গাড়িকে দায়ী করেন। কিন্তু যদি আমরা ফিটনেসবিহীন গাড়ি ধরতে অভিযান চালাই, তাহলে এতো গাড়ি ডাম্পিং করার জায়গা নেই।

এ বছরের আয়োজিত প্রদর্শনীতে রয়েছে ব্র্যান্ড নিউ মোটর বাইক, স্কুটারস এবং নতুন গাড়ি, স্পোর্টস ইউটিলিটি যানবাহন, মাল্টি ইউটিলিটি যানবাহন, বাণিজ্যিক যানবাহন, বাস, ট্রাক, থ্রি হুইলার, বিকল্প শক্তি চালিত যানবাহন ইত্যাদি। এছাড়া, প্রদর্শনীতে রয়েছে স্বয়ংচালিত সামগ্রী, খুচরা যন্ত্রাংশ, গ্যারেজ সরঞ্জাম, আনুষাঙ্গিক, বীমা পণ্য ও পরিসেবা, অটোফাইন্যান্স অ্যান্ড লিজিং, অটো ইন্ডাস্ট্রি, আইটি ও লুব্রিকেন্টস, সিএনজি কিট, টায়ার ও হুইল, অটো ইলেকট্রনিক্স, কোচ বিল্ডার এবং নিত্য নতুন প্রযুক্তির বিপুল সমাহার।

তারা জানান, বাংলাদেশের অনেক স্বনামধন্য আর্থিক প্রতিষ্ঠান প্র্রদর্শনীতে বিভিন্ন ধরণের অটোমোবাইল ঋণের আকর্ষণীয় অফার নিয়ে অংশগ্রহণ করবে যা ক্রেতা সকলের জন্য বিশেষ আকর্ষণ সৃষ্টি করবে। প্রদর্শনীটি দর্শক, ক্রেতা, ব্যবসায়ী, আমদানিকারক ও সরবরাহকারীদের মধ্যে কার্যকর সেতুবন্ধনে একটি সময়োপযোগী প্লাটফর্ম হিসেবে কাজ করবে।

গত কয়েক দশকে বাংলাদেশে অটো শিল্পের চাহিদা উল্লেখ্যযোগ্য হারে বৃদ্ধি পেয়েছে এবং মোটরগাড়ি আমদানির পরিমাণও বৃদ্ধি পেয়েছে। গত তিন বছরে গাড়ি বিক্রির হার তিনগুণ বেড়েছে, যেখানে একই সময়ে মোটরবাইক বিক্রয়ের পরিমানও দ্বিগুণ হয়েছে। বিকল্প জ্বালানিসহ এই অঞ্চলে বাংলাদেশ সবচেয়ে সক্রিয় ও দক্ষিণ এশিয়ার বৃহত্তম যানবাহন সিএনজি রূপান্তর অনুপাতের মধ্যে অন্যতম। এছাড়া, যানবাহনগুলোর ক্রমবর্ধমান আমদানি, বাজারে স্বয়ক্রিয় যন্ত্রাংশ এবং আনুষাঙ্গিকগুলোর চাহিদাও ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে।

অভ্যন্তরীণ চাহিদা মেটাতে অটোমোবাইল আমদানির পাশাপাশি দেশেই এখন নিজস্ব ব্র্যান্ডের মোটরবাইক তৈরি হচ্ছে। পাশাপাশি আন্তর্জাতিকভাবে খ্যাত ব্র্যান্ডগুলোর প্রাইভেটকার, বাস ও ট্রাক সংযোজন হচ্ছে। ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি বিদেশি উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশে মোটরসাইকেল ম্যানুফ্যাকচারিং শুরু করেছে। শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন প্রতিষ্ঠান বিএসইসি’র সাথে যৌথ অংশদারিত্বে জাপানের হোন্ডা ব্র্যান্ডের মোটর সাইকেল বাংলাদেশেই ম্যানুফ্যাকচারিং হচ্ছে।

ফলে, দেশে মোটরসাইকেলের দাম প্রায় ৫০ শতাংশ কমে এসেছে। বাজার সাফল্য বিবেচনা করে আরও কয়েকটি প্রতিষ্ঠান মোটরসাইকেল ম্যানুফ্যাকচারিং শুরু করতে যাচ্ছে। এর ফলে আগামী পাঁচ বছরে মোটর সাইকেলের চাহিদা বার্ষিক শতকরা ৩৫ ভাগ হারে বাড়বে বলে এ শিল্পখাতের উদ্যোক্তারা আশা প্রকাশ করেছেন।


এছাড়া, প্রদর্শনীর ব্রডকাস্ট পার্টনার- ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশন; মিডিয়া পার্টনার- দ্যা ডেইলি স্টার শিফট, দৈনিক সমকাল, রেডিও পার্টনার- রেডিও টুডে ৮৯.৬ এফএম; ম্যাগাজিন পার্টনার-ফিনটেক ও আইস বিজনেস টাইমস; মিডিয়া মনিটরিং পার্টনার- রায়ান্স আর্কাইভ লিমিটেড। এছাড়া, অনলাইন মিডিয়া পার্টনার হলো বাইকবিডি ও দেশীবাইকার।

সেমস গ্লোবালের প্রেসিডেন্ট মেহেরুন এন ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন আরইএল মোটরস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রিয়াদ হাসনাইন, র‍্যাংকন মোটর বাইকস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাওন হাকিম, এনার্জি প্যাক পাওয়ার জেনারেশন লিমিটেডের পরিচালক এনামুল হক চৌধুরী ও কর্ণফুলী গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক আনিসুদ্দৌলা প্রমুখ।

জনতারকন্ঠ/পিডি

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - janoterkontho@gmail.com or মতিঝিল অফিসঃ খান ম্যানশন, ১০৭ মতিঝিল, ঢাকা-১০০০

আপনার মতামত লিখুন :