করোনা ধ্বংসে কোন সাবান বেশি কার্যকর?

সংবাদদাতা
সংবাদদাতা
প্রকাশিত: 0৭:১৭, জুন ১৭ ২0২0 |
Print
ফাইল ছবি

বিশ্বব্যাপী বিস্তৃত সংক্রমণ কোভিড-১৯ আমাদের প্রাত্যহিক পরিষ্কারকরণ অভ্যাসে বড় প্রভাব ফেলেছে। এখন আমরা আগের তুলনায় ঘনঘন হাত ধুয়ে নিচ্ছি, এমনকি অনেকে প্রতিদিন দুই বা ততোধিক বার গোসলও করছেন। উদ্দেশ্য একটাই, হাতে বা শরীরে করোনাভাইরাস থাকলে তা ধ্বংস করে ফেলা।

এই মহামারিতে হাত বা শরীরে সাবান ব্যবহারের ক্ষেত্রে বেশিরভাগ মানুষ অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবানের দিকে ঝুঁকেছেন। এর ফলে প্রবল চাহিদার কারণে অনেক দোকানে জনপ্রিয় ব্র্যান্ডের অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবান পাওয়া যাচ্ছে না। কিন্তু অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল শব্দের মানে হলো ব্যাকটেরিয়ার প্রতি শত্রুভাবাপন্ন, তাই অনেকের মনে প্রশ্ন এসেছে এই সাবান ব্যবহারে করোনাভাইরাস ও অন্যান্য ভাইরাস ধ্বংস হয় কিনা। এছাড়া ভাইরাসের বিরুদ্ধে সাধারণ সাবানই বা কতটুকু কার্যকর ?

অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবান বনাম সাধারণ সাবান

প্রথমে আপনার জন্য সুখবর হলো, কোভিড-১৯ সৃষ্টিকারী করোনাভাইরাস দূর করতে আপনাকে বাড়তি টাকা খরচ করে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবান কিনতে হবে না। কারণ গবেষকরা জানিয়েছেন, করোনাভাইরাস ধ্বংসে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবান সাধারণ সাবানের চেয়ে বেশি কার্যকর এ ধারণা সঠিক নয়। এখন সাবান দুটির মধ্যকার পার্থক্য সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক।

রেভ রিভিউজ ডট অর্গের মেডিক্যাল কন্ট্রিবিউটর ক্যাসে নিকোলস বলেন, ‘অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবানে ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করে বা প্রতিলিপি তৈরিতে বাধা দেয় এমন কেমিক্যাল রয়েছে। এটা শুনতে ভালো লাগতে পারে, কিন্তু গবেষণায় দেখা গেছে যে ভাইরাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে এসব কেমিক্যাল কোনো অতিরিক্ত অবদান রাখতে পারে না।’

ইন্ডিয়ানা ইউনিভার্সিটি স্কুল অব মেডিসিনের মেডিসিন বিভাগের ক্লিনিক্যাল প্রফেসর ইমেরিটাস মরটন টাভেল বলেন, ‘অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবান ব্যাকটেরিয়াকে লক্ষ্যবস্তু বানায়, কিন্তু করোনাভাইরাস হলো একটি ভাইরাস। তাই কোভিড-১৯ প্রতিরোধে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবানের ব্যবহার অপ্রয়োজনীয়।’

গবেষকরা দেখেছেন, করোনাভাইরাস ধ্বংসের ক্ষেত্রে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবান ব্যবহারে সাধারণ সাবানের চেয়ে বেশি উপকার পাওয়া যাওয়া না। যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন (এফডিএ) এখনো এমন কোনো প্রমাণ পায়নি যে, অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবান সাধারণ সাবানের চেয়ে বেশি কার্যকর। সাধারণ সাবান ভালোভাবেই করোনাভাইরাস তাড়াতে পারে।

সাবান ভাইরাস ধ্বংস করে কিভাবে?

আপনি এখনো সাধারণ সাবানের ওপর আস্থা রাখতে পারছেন না? যাই হোক, করোনাভাইরাস এত ব্যাপক হারে ছড়িয়ে পড়েছে যে মনের মধ্যে সন্দেহ থাকাই স্বাভাবিক। কিন্তু আবারও বলা হচ্ছে, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সাধারণ সাবান দক্ষ সৈনিকের মতোই কাজ করতে পারে।

ডা. টাভেল বলেন, ‘টেকনিক্যালি সাবান শুধু জীবাণুকে ধ্বংস করতে নয়, বরং যেন ধুয়ে দূর করতে পারে সেভাবে তৈরি করা হয়।’ সাবান সেটাই করে যা পানি করতে পারে না। সাবান ভাইরাসের চারদিকে বেষ্টিত তৈলাক্ত খোলস বা আবরণকে ভেঙে ফেলে এবং একসময় পুরো ভাইরাসটি নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়ে। সাবানে পিনের মতো দুই পার্শ্বস্থ অণু থাকে। একপাশ ভাইরাসের তৈলাক্ত আবরণের সঙ্গে যুক্ত হয় এবং অন্যপাশ পানির দিকে আকৃষ্ট হয়, এর ফলে দ্বিমুখী টানে আবরণটি ভেঙে পড়ে। যে পাশ পানির সঙ্গে যুক্ত হয় তাকে হাইড্রোফিলিক হেড বলে এবং ভাইরাসের তৈলাক্ত আবরণের সঙ্গে যুক্ত হওয়া পাশকে হাইড্রোফোবিক টেইল বলে। আবরণটি তেলের মতো পানির সঙে মেশে না বলে শুধু পানির ব্যবহারে ভাইরাস দূর নাও হতে পারে, তাই সাবান ব্যবহারের প্রয়োজন রয়েছে। এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন হতে কিছুটা সময় লাগে, একারণে কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড ধরে সাবান-পানি দিয়ে হাত ধোয়া গুরুত্বপূর্ণ।

অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবান কি ক্ষতিকারক?

অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবানের ব্যবহার নিয়ে দুশ্চিন্তা করার মতো কারণ খুঁজে পেয়েছে এফডিএ। অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবানের অন্যতম উপাদান হলো ট্রাইক্লোসান। কিছু প্রাণীজ গবেষণায় দেখা গেছে, ট্রাইক্লোসান উপাদানটি হরমোনের কার্যক্রম পরিবর্তন করতে পারে। এছাড়া প্রতিদিন ট্রাইক্লোসান সমৃদ্ধ অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবান ব্যবহার করলে অ্যান্টিবায়োটিকের প্রতি রেজিস্ট্যান্ট হয়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এফডিএ ও এনভায়রনমেন্টাল প্রোটেকশন এজেন্সি (ইপিএ) উভয়েই অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবানের প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে সুনিশ্চিত হতে বিভিন্ন গবেষণা রিভিউ করছে। সম্ভাব্য ঝুঁকি এড়াতে সাধারণ সাবান ব্যবহার করতে পারেন। কোভিড-১৯ প্রতিরোধে সঠিকভাবে হাত ধোয়ার ওপর গুরুত্ব দিতে হবে। কেবল তালু নয়, হাতের পিঠ ও আঙুলের ফাঁকেও সাবান ব্যবহার করে ধুয়ে নিতে হবে। সময়ের দৈর্ঘ্য হবে ন্যূনতম ২০ সেকেন্ড।


বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - janoterkontho@gmail.com or মতিঝিল অফিসঃ খান ম্যানশন, ১০৭ মতিঝিল, ঢাকা-১০০০

আপনার মতামত লিখুন :