প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় বাড়ছে না গ্যাসের দাম

সংবাদদাতা
সংবাদদাতা
প্রকাশিত: 0৩:১0, অক্টোবর 0৯ ২0১৮ |
Print
ফাইল ছবি

জীবনকন্ঠ ডেস্ক :

    প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় বাড়ানো হচ্ছে না গ্যাসের দাম। বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি) গ্যাসের দাম বাড়ানোর ঘোষণা দেয়ার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আপত্তির কারণে তা স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় সূত্রে আরো জানানো হয়, জন ভোগান্তি যেনো না হয়, সেই কারণে গ্যাসের দাম না বাড়ানোর নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। তবে গ্যাস বিতরণ কোম্পানিগুলো মার্জিন বাড়ানোর বা সমন্বয়ের বিষয়ে ঘোষণা দেয়া হতে পারে এই সপ্তাহে। পাশাপাশি কিছু নতুন নিদের্শনাও দিতে পারে কমিশন।

জানা গেছে, তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাসের (এনএলজি) খরচ মেটাতেই গ্যাসের দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত হয়েছিল। এর আগে ১৫ সেপ্টেম্বর জাতীয় প্রেসক্লাবে এক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ উপদেষ্টা তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী জানিয়েছিলেন- উচ্চমূল্যের এলএনজির (তরল প্রাকৃতিক গ্যাস) দাম সমন্বয় করতে নির্বাচনের আগে আবাসিক বাদ দিয়ে অন্য সব খাতে গ্যাসের দাম বাড়াতে যাচ্ছে সরকার। তবে এ বৃদ্ধি যেন সহনীয় হয়, সেদিকে দৃষ্টি রাখতে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনকে বলা হয়েছে।

গত জুনে এলএনজি আমদানি চূড়ান্ত হওয়ার পরই গ্যাসের দাম বাড়ানোর তোড়জোড় শুরু হয়েছিল। জুনের ১১ তারিখ থেকে দাম বাড়ানোর ওপর শুনানি করে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি)। শুনানিতে প্রতি ঘনমিটার গ্যাসের গড় দাম সাত টাকা ৩৯ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ১২ টাকা ৯৫ পয়সা করার প্রস্তাব করেছিলো কোম্পানিগুলো। সব মিলিয়ে ৭৩ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছিল। শুনানিতে পেট্রোবাংলার পক্ষ থেকে বিইআরসিকে বলা হয় ভ্যাট, ব্যাংক চার্জ, রিগ্যাসিফিকেশন চার্জসহ নানা ধরনের চার্জ যোগ করে আমদানি করা এলএনজির বিক্রয়মূল্য দাঁড়াবে ৩৩ টাকা ৪৪ পয়সা, যা বর্তমানে বিক্রীত গ্যাসের চারগুণ বেশি। শুনানি শেষ হওয়ার ৯০ কার্যদিবসের মধ্যে দাম বাড়ানোর ঘোষণা দেয়ার কথা ছিল। কিন্তু এরই মধ্যে এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আপত্তির কথা জানা গেল।


জীবনকন্ঠ/এসকে

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - janoterkontho@gmail.com or মতিঝিল অফিসঃ খান ম্যানশন, ১০৭ মতিঝিল, ঢাকা-১০০০

আপনার মতামত লিখুন :