রুপালি ইলিশের সোনালি দিন

সংবাদদাতা
সংবাদদাতা
প্রকাশিত: 0১:২৫, নভেম্বর 0৬ ২0১৮ |
Print
ফাইল ছবি

জনতারকন্ঠ ডেস্ক :

    একসময় অস্তিত্ব সংকটে পড়া ইলিশের উৎপাদন এখন রেকর্ড পরিমাণ। মূলত ২০০৮ সাল থেকে জাটকা নিধন ও প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ ধরা বন্ধ কার্যক্রমে ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে। বিগত নয় বছরে উৎপাদন বেড়েছে প্রায় ৬৬ শতাংশ। ২০০৮-০৯ অর্থবছরে ২ লাখ ৯৮ হাজার ৯২১ টন ইলিশ উৎপাদিত হলেও সর্বশেষ ২০১৭-১৮ অর্থবছরে হয় প্রায় ৫ লাখ মেট্রিক টন। এ ছাড়া বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের গবেষকদের মতে, বিগত অর্থবছরে প্রায় ৪৮ শতাংশ ইলিশ ডিম ছাড়তে সক্ষম হয়েছে, যা অন্যান্য যে কোনো সময়ের চেয়ে ঢের বেশি। আর একটা মা ইলিশ আকার অনুসারে ৪ থেকে ২১ লাখ ডিম ছাড়ে। এর মধ্যে পরিপক্ব হয় ১০ শতাংশ।

মৎস্য অধিদপ্তর সূত্র জানায়, ২০০২-০৩ অর্থবছরে দেশে ২ লাখ টনের কম ইলিশ উৎপাদন হয়েছিল। ২০০৩-০৪ অর্থবছরে তা ১ লাখ ৩৩ হাজার ৩২ টনে নেমে আসে। এর পর জাটকা রক্ষা কর্মসূচির কারণে কিছুটা বাড়ে। ২০০৮-০৯ অর্থবছরে উৎপাদন হয় ২ লাখ ৯৮ হাজার ৯২১ টন ইলিশ। তখন প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ ধরা বন্ধ কর্মসূচি জোরদার করলে  উৎপাদন ৩ লাখ টন ছাড়িয়ে যায়। শুরুতে এ কার্যক্রম খুব একটা ফলপ্রসূ না হলেও প্রচার-প্রচারণা, জেলেদের ভাতা প্রদান ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের কার্যক্রম পরিচালনায় ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে। আর এতে গত নয় বছরে ইলিশ উৎপাদন বেড়েছে প্রায় ৬৬ শতাংশ।
মৎস্য অধিদপ্তরের জ্যেষ্ঠ সহকারী পরিচালক মাসুদ আরা মোমি বলেন, ‘এ বছর প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ ধরা বন্ধে সর্বস্তরের মানুষ সাড়া দিয়েছে। ফলে চাহিদার তুলনায় বেশি ইলিশ ধরা পড়বে বলে আমরা আশা করছি।’ তিনি জানান, প্রজনন মৌসুমে ইলিশ সংরক্ষণে এবার সারাদেশে ৬৬০টি অভিযান চালানো হয়। এ সময় প্রায় ৩ কোটি ৮৬ লাখ টাকা মূল্যের প্রায় ২০ লাখ মিটার দীর্ঘ জাল জব্দ করা হয়। আর ২০০৮ সাল থেকে এ পর্যন্ত ১৪ হাজার ৬১৪টি অভিযানে জব্দ হয় ৪ কোটি ৩৮ লাখ মিটার দীর্ঘ জাল, যার বাজারমূল্য প্রায় ৭২ কোটি ৪২ লাখ টাকা। এতে ৪ হাজার ৪৬৬টি মামলায় ৬০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
এদিকে নিষেধাজ্ঞা শেষে প্রচুর ইলিশ ধরা পড়ছে। দামও কিছুটা কম। তবে ডিমওয়ালা কিংবা ডিম ছাড়ার পর ইলিশের স্বাদ কমে যাওয়ায় তেমন ক্রেতা নেই। ব্যবসায়ীরা অবশ্য মনে করেন, আগামী সপ্তাহ থেকে সবই স্বাভাবিক হয়ে যাবে। গতকাল কারওয়ানবাজারে গিয়ে দেখা যায়, এক কেজি ওজনের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার টাকায়। এ ছাড়া ৮০০ গ্রাম ওজনের ৬০০ থেকে ৬৫০, ৬০০ গ্রামের ৩৫০, আধা কেজি ২৫০ এবং ৪০০ গ্রাম ওজনের ছোট ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ১৮০ টাকা দরে।


জনতারকন্ঠ/এসকে

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - janoterkontho@gmail.com or মতিঝিল অফিসঃ খান ম্যানশন, ১০৭ মতিঝিল, ঢাকা-১০০০

আপনার মতামত লিখুন :